top of page
For Newsletter
new logo.jpg

বিয়ের দুমাসের মধ্যেই সুখবর কাপুর পরিবারে




বিয়ের আড়াই মাসের মাথাতেই জবর খবর দিয়ে ফেললেন রণবীর-ঘরনি । মা হতে চলেছেন আলিয়া ভাট । 'আমাদের বেবি আসছে খুব জলদি’, আজই সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন আলিয়া। ইতিমধ্যেই রণবীর-আলিয়াকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন করণইতিমধ্যেই রণবীর-আলিয়াকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন করণ জোহর, ঋদ্ধিমা কাপুর সাহানি, মৌনি রায়, রকুলপ্রীত সিং, টাইগার শ্রফরা। ১৪ ই এপ্রিল বিয়ে করেন রণবীর কাপুর আর আলিয়া ভাট। মুম্বইয়ে রণবীর কাপুরের বাড়িতেই ঘরোয়াভাবে হয়েছিল বিয়ের আয়োজন। তার দিনকয়েকের মধ্যেই কাজে ফেরেন দু'জন। এখনও হানিমুনটাও হয়ে ওঠেনি! তার মাঝেই এল খুশির খবর। বিয়ের আড়াই মাসের মধ্যে অন্তঃসত্ত্বা আলিয়া! সপ্তাহের শুরুতে খুশির জোয়ার কপূর পরিবারে। ইনস্টাগ্রামে আলিয়ার ওই পোস্টে দেখা গিয়েছে, আল্ট্রাসোনোগ্রাফি চলছে অভিনেত্রীর। হাসি মুখে কম্পিউটারের পর্দায় চোখ রেখে হাসপাতালের শয্যায় শুয়ে ‘গঙ্গুবাঈ’। ফ্রেমে রয়েছেন রণবীরও। তাঁর চোখও মনিটরে।



গত শুক্রবারই ‘সমশেরা’-র টিজার মুক্তির অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন রণবীর কাপুর কে। সেখানে এক সাক্ষাৎকারে দাম্পত্য নিয়ে অকপটে কথা বলেন রণবীর কাপুর । জানিয়েছিলেন, জীবনে কোনগুলো একান্ত চাহিদা আর কোনটা বাড়তি, তা এখন ভাল ভাবে বুঝতে শিখেছেন। বিয়ের পর এক ধাক্কায় যেন বাস্তবকে টের পাচ্ছেন ‘ব্রহ্মাস্ত্র’র নায়ক।সাংবাদিকরা তাঁর কাছে থেকে দাম্পত্যের গল্প শুনতে চাইলে নিরাশ করেননি রণবীর। হাসতে হাসতেই বলেন, ‘‘আগে সিনেমার সংলাপের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বলতাম, জীবনটা কেবল ডাল-ভাতে চলে নাকি? হাক্কা চাউমিন, পাওভাজি, টেংরি কাবাব— সবই তো লাগে। কিন্তু এখন বলব, একটা সময়ের পরে জীবনটা ডাল-ভাতই। ওইটুকুই মুখ্য হয়ে ওঠে। আলিয়া এখন আমার সেই জায়গা নিয়েছে। সে-ই ডাল-ভাত, কখনও তাতে তড়কা, কখনও মশলা, কত কী মিশছে! এ জীবন শান্তির, সুখের। আমার ভাল লাগছে।’’ও



ই প্রচার অনুষ্ঠানেই কথায় কথায় যেন পরিবারে নতুন অতিথির আগমনের আভাস দেন রণবীর। বলেছিলেন, ‘‘পরিবারের কথা ভাবতে হচ্ছে এখন। আমাদের সংসারও বাড়বে।’’ তৎক্ষণাৎ জল্পনা শুরু হয়েছিল ভক্তমহলে। তা হলে কি দ্রুতই সন্তানকে পৃথিবীতে আনতে চলেছেন রণবীর-আলিয়া? তবে সোমবার সকালের ঘটনায় তাজ্জব সকলেই। এত তাড়াতাড়ি খুশির খবর আসবে, কেউ ভাবতে পেরেছিলেন নাকি । খবর বলছে নভেম্বরেই আসবে খুদে ভাট-কাপুর। আলিয়ার মা সোনি রাজদান জানিয়েছেন, ‘আমাদের খুশির কোনও অন্ত নেই। বলা যায় খুশির সপ্তম স্বর্গে আছি আমি। মা-বাবা হতে চলা আলিয়া-রণবীরের জন্য যেমন আনন্দ হচ্ছে, তেমন খুশি গোটা পরিবারের জন্য। সন্তান হওয়া বা একটা নতুন প্রাণকে পৃথিবীতে আনার থেকে খুশির, আনন্দের, আত্মতৃপ্তির খবর আর কি বা হতে পারে!’



header.all-comments


movie-entertainment-logo-vector-38310588.png
bottom of page